প্রতিশোধমূলক ছবি পোস্ট ঠেকাতে অতি গোপনীয় ছবি ফেসবুককে দিতে হবে

ফেসবুক নতুন প্রযুক্তি নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে। তাঁরা ব্যবহারকারীদের কাছে তাই অতি গোপনীয় ছবি চাইছে। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে দুর্বৃত্তদের ঠেকানো। যুক্তরাজ্যে যাঁরা ফেসবুক ব্যবহার করেন সম্প্রতি তাঁরা ফেসবুকের কাছ থেকে ব্যক্তিগত গোপনীয় ছবি পোস্ট করার অনুরোধ পান। ফেসবুক বলছে, এ ছবি সংগ্রহের উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রতিশোধমূলকভাবে নগ্ন ছবি পোস্ট ঠেকানো। প্রতিশোধমূলক ভাবে একজন আরেকজনের নগ্ন ছবি পোস্ট করার ঘটনা রুখে দিতেই এ ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে তারা। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

কারও ব্যক্তিগত ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি অন্য কোনো ব্যক্তি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করে দিতে পারে-এমন আশঙ্কা থাকলে সে ক্ষেত্রে এটি কাজ করবে। কেননা অনলাইনে ওই ছবি প্রকাশিত হওয়ার আগেই তা ব্লক করে দেবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

একই প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শিশুদের হয়রানিমূলক ছবি ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ অস্ট্রেলিয়াতে এই প্রক্রিয়াটি পরীক্ষা করেছে। এখন তারা যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডাতে এ পরীক্ষা শুরু করতে যাচ্ছে।

নিউজবিটকে ফেসবুকের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, এখন যুক্তরাজ্যের মানুষদের জন্য বিষয়টি উন্মুক্ত করা হয়েছে।

ফেসবুক অবশ্য অস্ট্রেলিয়ায় তাদের পরীক্ষা কতটুকু সফল হয়েছে সে সম্পর্কে কোনো তথ্য জানায়নি।

এখন ফেসবুকের কাছে অতি গোপনীয় ছবি পাঠানোর বিষয়টি নির্ভর করছে ফেসবুকের ওপর বিশ্বাসের ওপর। ফেসবুক বলছে, বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ার তারা বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নেবে। ফেসবুকে আপলোড করা ছবিটি মাত্র পাঁচজনের বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পর্যালোচনাকারী দল দেখবে। তারা একটি হ্যাসিং নামের বিশেষ ডিজিটাল ফুটপ্রিন্ট তৈরি করবে। তা ডেটাবেসে রাখা হবে। কেউ যদি ফেসবুক, মেসেঞ্জার বা ইনস্টাগ্রামে এ ছবি পোস্ট করতে চায় তা ব্লক করা হবে। আসল ছবিটি ফেসবুক সংরক্ষণ করে রাখবে না।

শেয়ার করুন :

Leave a Reply